বাংলাদেশের বিলুপ্ত প্রাণীর নাম জেনে নিন

বাংলাদেশের বৈচিত্র্যময় জীববৈচিত্র্য একসময় অনেক বন্যপ্রাণীতে ভরে ছিল। কিন্তু দুঃখজনকভাবে, বন উজাড়, শিকার, দূষণ এবং আবাসস্থল হ্রাসের কারণে, অনেক প্রজাতি চিরতরে হারিয়ে গেছে।

এই নিবন্ধে, আমরা বাংলাদেশের কিছু বিলুপ্ত প্রাণীর নাম তালিকাভুক্ত করবো:

বাংলাদেশের বিলুপ্ত প্রাণীর নাম:

স্তন্যপায়ী প্রাণী:

  • ধূসর নেকড়ে: একসময় বনভূমিতে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যেত, এখন সম্পূর্ণ বিলুপ্ত।
  • সুমাত্রা গন্ডার: একসময় চট্টগ্রামের পাহাড়ি এলাকায় দেখা যেত।
  • জাভা গন্ডার: সুমাত্রা গন্ডারের মতো, এটিও বাংলাদেশ থেকে বিলুপ্ত।
  • বন্য মহিষ: বনভূমিতে এবং জলাভূমিতে পাওয়া যেত, এখন বিলুপ্ত।
  • বাদামী ভালুক: পাহাড়ি এলাকায় বসবাস করত, এখন বিলুপ্ত।
  • চীনা প্যাঙ্গোলিন: একটি আঁশযুক্ত স্তন্যপায়ী, এখন শিকারের জন্য বিলুপ্ত।

পাখি:

  • লালমুখ দাগিডানা: একসময় সিলেটের পাহাড়ি এলাকায় দেখা যেত।
  • সারস: একসময় বাংলাদেশের নদীতে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যেত।
  • ধূসর মেটে তিতির: একসময় বনভূমিতে পাওয়া যেত।
  • বাদা তিতির: একসময় জলাভূমিতে পাওয়া যেত।
  • বাদি হাঁস: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন জলাশয়ে পাওয়া যেত।
  • গোলাপি হাঁস: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন জলাশয়ে পাওয়া যেত।
  • মদনটাক: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন জলাশয়ে পাওয়া যেত।
  • ধলাপেট বগ: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন জলাভূমিতে পাওয়া যেত।
  • সাদাফোঁটা গগন রেড: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন জলাভূমিতে পাওয়া যেত।
  • রাজশকুন: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় পাওয়া যেত।
  • দাগি বুক টিয়াঠুঁটি: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন বনে পাওয়া যেত।
  • লালমাথা টিয়াঠুঁটি: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন বনে পাওয়া যেত।
  • গাছ আঁচড়া: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন বনে পাওয়া যেত।
  • সবুজ ময়ূর: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন বনে পাওয়া যেত।

সরীসৃপ:

  • গঙ্গা গিরিটিকটিকি: একসময় বাংলাদেশের বিভিন্ন নদীতে পাওয়া যেত।

এই তালিকাটি সম্পন্ন নয়।

প্রাণী বিলুপ্তির কারণ:

  • বন উজাড়: বন উজাড় প্রাণীদের আবাসস্থল ধ্বংস করে তাদের বিলুপ্তির অন্যতম প্রধান কারণ।
  • শিকার: বন্যপ্রাণীর শিকার তাদের সংখ্যা হ্রাস করে এবং বিলুপ্তির দিকে ধাবিত করে।
  • দূষণ: জল, বায়ু এবং মাটি দূষণ প্রাণীদের খাদ্য এবং আবাসস্থলের ক্ষতি করে।
  • আবাসস্থল হ্রাস: শহরাঞ্চলে বৃদ্ধি এবং কৃষিক্ষেত্র সম্প্রসারণের ফলে প্রাণীদের আবাসস্থল হ্রাস পায়।

আরো পড়ুন: প্রাণী সংরক্ষণে মানুষের করণীয় সম্পর্কে জানুন

উপসংহার:

বাংলাদেশের জীববৈচিত্র্য রক্ষার জন্য আমাদের দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন। বন উজাড় রোধ করা, শিকার বন্ধ করা, দূষণ নিয়ন্ত্রণ করা এবং প্রাণীদের আবাসস্থল রক্ষা করা গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের সকলেরই এই বিলুপ্ত প্রাণীদের মনে রাখা উচিত এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য আমাদের প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষা করার জন্য কাজ করা উচিত।

দ্রষ্টব্য:

  • এই তালিকাটি বিভিন্ন উৎস থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে এবং সম্পূর্ণ বা সঠিক নাও হতে পারে।
  • কিছু প্রাণী যা এই তালিকায় বিলুপ্ত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, তারা আসলে বিরল বা বিপন্ন হতে পারে।
  • বিলুপ্ত প্রাণী সম্পর্কে আরও তথ্যের জন্য, অনুগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের সাথে যোগাযোগ করুন।

নিম্নলিখিত তথ্যসূত্রগুলো বাংলাদেশের বিলুপ্ত প্রাণী সম্পর্কে আরও জানতে সাহায্য করবে:

ওয়েবসাইট:

বই:

  • বাংলাদেশের বিলুপ্ত ও বিপন্ন প্রাণী – অধ্যাপক গাজী আসমত
  • বাংলাদেশের বন্যপ্রাণী – বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী বিভাগ
  • বাংলাদেশের প্রাণীবৈচিত্র্য – বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর

গবেষণাপত্র:

  • Status of wild animals in Bangladesh – IUCN Bangladesh
  • The disappearing wildlife of Bangladesh – Mongabay
  • Extinct and endangered animals of Bangladesh – The Daily Star

এছাড়াও, আপনি:

  • স্থানীয় জাদুঘর এবং প্রাকৃতিক ইতিহাসের জাদুঘর পরিদর্শন করতে পারেন।
  • বন্যপ্রাণী বিশেষজ্ঞদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।
  • বাংলাদেশের বিলুপ্ত প্রাণী সম্পর্কে তথ্যপূর্ণ ডকুমেন্টারি এবং প্রোগ্রাম দেখতে পারেন।

**বাংলাদেশের বিলুপ্ত প্রাণী সম্পর্কে আরও জানা আমাদের প্রাকৃতিক ঐতিহ্য সম্পর্কে আরও ভালভাবে বুঝতে সাহায্য করবে এবং ভবিষ্যতে আরও প্রাণীর বিলুপ্তি রোধে পদক্ষেপ নিতে

Leave a Comment