চাকরির দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানুন

চাকরির বাজারে প্রতিযোগিতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। এমন পরিস্থিতিতে আপনার যোগ্যতা যতই থাকুক না কেন, একটি আকর্ষণীয় এবং তথ্যপূর্ণ দরখাস্ত ছাড়া আপনি আপনার স্বপ্নের চাকরি থেকে বঞ্চিত হতে পারেন। একটি সঠিকভাবে লেখা চাকরির দরখাস্ত আপনাকে সাক্ষাত্কারের জন্য ডাক পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বাড়িয়ে দেয়। চলুন জেনে নেওয়া যাক চাকরির দরখাস্ত লেখার সঠিক নিয়ম এবং কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস।

চাকরির দরখাস্ত লেখার নিয়ম

১. কভার লেটার:

  • আপনার পরিচয়: আপনার নাম, ঠিকানা, ইমেইল এবং ফোন নম্বর দিয়ে শুরু করুন।
  • কোম্পানির ঠিকানা: কোম্পানির নাম, ঠিকানা এবং প্রাপকের নাম (যদি জানা থাকে) লিখুন।
  • শুরুর অংশ: কোন পদের জন্য আবেদন করছেন এবং কোথা থেকে চাকরির বিজ্ঞাপনটি পেয়েছেন তা উল্লেখ করুন।
  • মূল অংশ: আপনার যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতা সম্পর্কে সংক্ষেপে লিখুন। কেন আপনি এই চাকরির জন্য উপযুক্ত তা ব্যাখ্যা করুন।
  • শেষের অংশ: সাক্ষাত্কারের জন্য আপনার আগ্রহ প্রকাশ করুন এবং ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করুন।

২. রেজুমি/সিভি:

  • ব্যক্তিগত তথ্য: আপনার নাম, ঠিকানা, ইমেইল, ফোন নম্বর এবং একটি পেশাদার ছবি দিয়ে শুরু করুন।
  • কর্মজীবনের উদ্দেশ্য: আপনার ক্যারিয়ারের লক্ষ্য সম্পর্কে সংক্ষেপে লিখুন।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা: আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা উল্লেখ করুন (ডিগ্রী, প্রতিষ্ঠান, বছর)।
  • কর্ম অভিজ্ঞতা: আপনার পূর্ববর্তী চাকরির অভিজ্ঞতা, কোম্পানির নাম, পদ, সময়কাল এবং দায়িত্ব সম্পর্কে বিস্তারিত লিখুন।
  • দক্ষতা: আপনার কম্পিউটার দক্ষতা, ভাষা দক্ষতা এবং অন্যান্য প্রাসঙ্গিক দক্ষতা উল্লেখ করুন।
  • অর্জন: আপনার অর্জন, পুরস্কার, প্রকাশনা ইত্যাদি উল্লেখ করুন।
  • রেফারেন্স: প্রয়োজনে রেফারেন্সের তথ্য দিতে পারেন।

চাকরির দরখাস্ত লেখার গুরুত্বপূর্ণ টিপস:

  • প্রতিটি চাকরির জন্য আলাদা করে দরখাস্ত লিখুন: কোম্পানির প্রয়োজনীয়তা এবং চাকরির বিবরণ অনুযায়ী দরখাস্ত লিখুন।
  • বানান এবং ব্যাকরণের দিকে খেয়াল রাখুন: একটি ভুল দরখাস্ত আপনার প্রতি নিয়োগকর্তার নেতিবাচক ধারণা তৈরি করতে পারে।
  • সংক্ষিপ্ত এবং স্পষ্টভাবে লিখুন: দীর্ঘ এবং জটিল বাক্য এড়িয়ে চলুন।
  • সত্য তথ্য দিন: মিথ্যা তথ্য দিলে আপনার আবেদন বাতিল হতে পারে।
  • পেশাদার ফন্ট এবং ফরম্যাট ব্যবহার করুন: Times New Roman, Arial বা Calibri ফন্ট ব্যবহার করুন এবং সঠিক ফরম্যাট মেনে চলুন।
  • অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে সঠিক ফাইল ফরম্যাট ব্যবহার করুন: PDF বা Word ফরম্যাট ব্যবহার করুন।

চাকরির দরখাস্তের উদাহরণ বা ডেমো

[আপনার নাম]
[আপনার ঠিকানা]
[আপনার ইমেইল]
[আপনার ফোন নম্বর]

[তারিখ]

[নিয়োগকর্তার নাম (যদি জানা থাকে)]
[নিয়োগকর্তার পদবী]
[কোম্পানির নাম]
[কোম্পানির ঠিকানা]

বিষয়: [পদের নাম] এর জন্য আবেদন

প্রিয় [নিয়োগকর্তার নাম/ মহোদয়/মহোদয়া],

আমি [চাকরির বিজ্ঞাপনের উৎস] এ প্রকাশিত [পদের নাম] এর জন্য আবেদন করছি। আমি বিশ্বাস করি, আমার যোগ্যতা এবং অভিজ্ঞতা এই পদের জন্য উপযুক্ত।

আমি [আপনার ডিগ্রী] ডিগ্রীধারী এবং [আপনার বিষয়] বিষয়ে [আপনার প্রতিষ্ঠানের নাম] থেকে স্নাতক/স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছি। আমার [আপনার অভিজ্ঞতার বছর সংখ্যা] বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে [আপনার কাজের ক্ষেত্র] ক্ষেত্রে। আমি [আপনার পূর্বের কোম্পানির নাম] এ [আপনার পূর্বের পদ] হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি।

আমার দায়িত্বের মধ্যে [আপনার দায়িত্বের সংক্ষিপ্ত বিবরণ] অন্তর্ভুক্ত ছিল। এই সময়ে, আমি [আপনার অর্জনের সংক্ষিপ্ত বিবরণ] অর্জন করেছি। আমি [আপনার দক্ষতার সংক্ষিপ্ত বিবরণ] দক্ষতায় পারদর্শী।

আমি একটি [আপনার ব্যক্তিত্বের সংক্ষিপ্ত বিবরণ] ব্যক্তি এবং দলগত কাজে বিশ্বাসী। আমি [কোম্পানির নাম] এর লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য সম্পর্কে অবহিত এবং আমি বিশ্বাস করি, আমি এই কোম্পানির সাফল্যে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারব।

সংযুক্ত আমার রেজুমি/সিভি থেকে আপনি আমার যোগ্যতা এবং অভিজ্ঞতা সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন। আমি আশা করি, আপনি আমাকে একটি সাক্ষাত্কারের সুযোগ দেবেন।

আপনার সময় এবং বিবেচনার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আপনার বিশ্বস্ত,

[আপনার স্বাক্ষর]
[আপনার নাম]

আরো পড়ুন: ইমেইল লেখার নিয়ম

উপসংহার:

একটি সুগঠিত এবং তথ্যপূর্ণ চাকরির দরখাস্ত আপনাকে আপনার স্বপ্নের চাকরি পাওয়ার পথে অনেক সাহায্য করতে পারে। উপরোক্ত নিয়ম এবং টিপস অনুসরণ করে আপনি একটি আকর্ষণীয় দরখাস্ত লিখতে পারেন এবং নিজেকে অন্যদের থেকে আলাদা করে উপস্থাপন করতে পারেন।

Leave a Comment